গোবিন্দগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসির আদেশ

  • অনলাইন
  • শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:৫৫:০০
  • কপি লিঙ্ক
গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা স্ত্রী খাদিজা বেগমকে হত্যার দায়ে স্বামী মাইদুল ইসলাম মিঠুকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জর্জ আদালতের বিচারক দীলিপ কুমার ভৌমিক এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী মাইদুল ইসলাম মিঠু গাইবান্ধা সদর উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে। দাম্পত্য কলহের জেরে গত ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী রাতে খাদিজা শ্বাসরোধ করে হত্যা করে স্বামী মাইদুল ইসলাম মিঠু। পরদিন সকালে বিছানার উপর গলায় ওরনা জরানো খাদিজার মরদেহ দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। ওই দিন নিহত খাতিজার বাবা মো: আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষী প্রমাণ শেষে আদালত এই রায় প্রদান করেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৬ সালে মাইদুল ইসলামের সাথে মুসলিম শরিয়া মোতাবেক খাদিজা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর দীর্ঘ ৯ বছর সংসারে তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে হয়। পরে ২০১৫ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়। বিচ্ছেদের দুই বছর পর ২০১৭ সালে আবার তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তখন থেকেই মাইদুল ইসলাম গোবিন্দগঞ্জের ফুলহার গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করা শুরু করেন। শ্বশুরবাড়িতে থাকাকালীন প্রায়ই তাদের দাম্পত্য কলহ লেগে থাকত। একপর্যায়ে গত ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি রাতে মাইদুল খাদিজাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যান। পরদিন খাদিজার বাবা আব্দুর রাজ্জাক গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে ২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার আদালত আসামি মাইদুল ইসলাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন। এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফারুক আহম্মেদ প্রিন্স এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এ মামলায় আসামি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই আদালত মাইদুল ইসলাম মিঠুকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডাদেশ কার্যকর করা আদেশ দিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য