জলাধার ও পুকুর ভরাট করে মার্কেট নির্মানের প্রতিবাদে গাইবান্ধায় ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

  • গাইবান্ধা সংবাদদাতা
  • সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১০:৪৮:০০

জলাধার ভরাট করে মার্কেট নির্মানের চক্রান্ত ও জলাধার পুরন করে লীজ দেয়ার  প্রক্রিয়ার প্রতিবাদে আজ গাইবান্ধায় মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করেছে।

গাইবান্ধা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান সরকার জেলা পরিষদ চত্তরের শতবর্ষী পুকুর ভরাট করে মার্কেট নির্মানের পরিকল্পনা করেন । দরপত্রও আহবান করেন । ঠিকাদারের মাধ্যমে সেই অনুযায়ী পুকুরের চারপাশে টিনের বেড়া দিয়ে রাত দিন বালু দিয়ে ভরাটের কাজও করতে থাকেন। তাছাড়া জেলা পরিষদের সামনের জলাধার বালি দিয়ে ভরাট করা শুরু করেছে। এই জলাধার ও পুকুর পুরন করে মার্কেট নির্মানের পরিকল্পনা বাতিলের দাবীতে গাইবান্ধার শুশিল সমাজ আন্দোলন শুরু করে ।

 সিপিবি নেতা মিহির ঘোষ বলেন শতবর্ষী পুকুর ও চারপাশের জলাধার ভরাট করে নিজের মেয়ে সহ স্বজনদের নামে লীজ দেয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। তাছাড়াও মার্কেট গড়ার নামে শতাধিক লোকের কাছে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন । জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমানের এধরনের কাজ বন্ধ করার জন্য  গাইবান্ধা নাগরিক মঞ্চ এর ডাকে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করে । পরিবেশবাদী জাহাঙ্গীর আলম তনু বাদী হয়ে কাজ বন্ধ করতে আদালতে মামলাও করেন । আদালতের নিশেধাঞ্জা সত্বেও মাটি ভরাট কাজ বন্ধ হয়নি ।  

এই ধারাবাহিকতায় আজ দুপুরে গাইবান্ধা জেলা পরিষদ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির আয়োজনে আজ দুপুরে হকার্স মার্কেটের সামনে মানববন্ধন কর্মসুচীতে ব্যবসায়ী ও শুশিল সমাজের লোকজন অংশ নেয়। এসময় মানবন্ধন কর্মসুচী চলার সময় বক্তব্য রাখেন ব্যবসায়ী নেতা সুজন প্রসাদ ,সুমন চৌধুরী ,আব্দুল হালিম সহ অন্যরা । 

বক্তরা বলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে মার্কেট নির্মান করবেন তা মেনে নেয়া যায়না । শতবর্ষী জলাধার ও পুকুর ভরাট করে মার্কেট নির্মান করা যাবেনা । এতে পরিবেশ বিপন্ন হবে এবং শতবর্ষী স্মৃতি মুছে ফেলা হবে । এর প্রতিবাদে ব্যবসায়ীরা এই কর্মসুচী পালন করে ।


 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

মন্তব্য